ব্লগিং শুরু আগে যা জানতেই হবে

আজকাল সামান্য কিছু উপায়ে যেকেউ খুবই সহজে ব্লগ তৈরি করতে পারেন। ব্লগিং একটি অবিশ্বাস্য মার্কেটিং ব্যবস্থা যা এমনকি আয়ের একটি বড় উৎস হতে পারে। যাই হোক আপনি যদি একটি সহজ এবং লাভজনক ব্লগ বানাতে চান তাহলে আপনাকে নিজের সঠিক পথ নিজেকেই বেছে নিতে হবে।


তা আপনি ব্লগিং শুরু করবেন ভাবছেন?

আজকাল সামান্য কিছু উপায়ে যেকেউ খুবই সহজে ব্লগ তৈরি করতে পারেন।  ব্লগিং একটি অবিশ্বাস্য মার্কেটিং ব্যবস্থা যা এমনকি আয়ের একটি বড় উৎস হতে পারে। যাই হোক আপনি যদি একটি সহজ এবং লাভজনক ব্লগ বানাতে চান তাহলে আপনাকে নিজের সঠিক পথ নিজেকেই বেছে নিতে হবে।

ব্লগিং সম্পূর্ণ সময় এবং প্রচেষ্টার বিষয়

শুরু করার আগে, নিজেকে জিজ্ঞাসা করুন যে আপনি কেন ব্লগিং শুরু করবেন। যদি আপনার লক্ষ্য শুধুমাত্র অনলাইনে অর্থ উপার্জন হয়,  তাহলে সত্যি বলতে ব্লগিং হয়ত আপনার জন্য নয়। অনলাইনে প্রায় একশ -র থেকেও বেশি উপায়ে আপনি উপার্জন করতে পারবেন কিন্তু ব্লগিং থেকে উপার্জন সবচেয়ে বেশি কঠিন।

ব্লগিং এর জন্য আপনাকে খুবই পরিশ্রমী হতে হবে এছাড়া এটির পাঠক যোগাড় করতে অনেক সময় লাগবে। এটি খুবই দুঃখজনক যে আপনি আপনার প্রথম পোষ্ট পাবলিস করবেন কিন্তু কেউ সেটি পড়বে না। আপনাকে এই ধরনের বিশ্রী বিষয়কে এড়িয়ে চলতে হবে। ফলাফল অবিলম্বে আশা করবেন না। 

সফল ব্লগাররা খুবই ধৈর্যশীল হয়ে তাদের ব্লগের লেখা চালিয়ে যান অবিরত। এটি খুবই কঠিন কাজ কিন্তু অসম্ভব নয়। 

ব্লগিং ফ্রি নয়

ওয়ার্ডপ্রেস.com এবং ব্লগার প্ল্যাটফর্ম সম্পূর্ণ ফ্রি এবং এগুলোর ব্যবহার খুবই সহজ।  যাইহোক, আপনি ফ্রিতে যতদূর এগিয়ে যান যান না কেন আপনি ব্লগটিকে নিজের বলে দাবি করতে পারবেন না। কারণ ব্লগের বেশিরভাগ আয়ত্ব থাকবে প্রোভাইডারের এবং এতে বিভিন্ন ধরনের সীমাবদ্ধতা থাকবে।

যদি আপনি একটি ওয়েব এড্রেস,  ভালো ডিজাইন,  বিশাল স্টোরেজ এছাড়া আরো বেশি কিছু চান তাহলে আপনার জন্য সেল্ফ-হোস্টেড ওয়ার্ডপ্রেস ব্লগ ভালো হবে। আপনি হোস্টিং,  ডোমেইন কিনে এবং ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটল করে সেল্ফ-হোস্টেড ব্লগ শুরু করতে পারেন। যার জন্য আপনাকে বছরে মাত্র ৪০০০৳-৮০০০৳ টাকা ব্যয় করতে হবে। 

আরো পড়ুন  র‍্যান্সমওয়্যার আপনার কম্পিউটারের ডাটা সম্পূর্ণ ধ্বংস করে দিতে পারে

ব্লগ শুরু করার পর, আপনাকে ব্লগে যথেষ্ট পাঠক পেতে এবং তাদের সংশ্লিষ্টতা বাড়াতে  আরো কিছু অর্থ ব্যয় করতে হতে পারে।

অর্থ ব্যয়ের খাতগুলো হবেঃ

  1. ডিজাইনিং

  2. ডেভেলপিং

  3. বিজ্ঞাপন

  4. আরো লেখক সংগ্রহ

  5. সফটওয়্যার

বিষয়বস্তু হলো প্রধান

অনেকেই একটি তর্কে জড়িয়ে পড়েন যে, "কোয়ালিটি নাকি কুয়েন্টিটি?" 

আপনার কুয়েন্টিটি দরকার আপনার ট্রাফিকদের আকর্ষণ করার জন্য কিন্তু আপনাকে অবশ্যই কুয়েন্টিটি থেকেও বেশি লেখার কোয়ালিটিকে গুরুত্ব দিতে হবে।

আপনার পাঠক যদি ভালো কিছু তথ্য পেয়ে থাকে তাহলে অবশ্যই তারা আপনার সাইটের সাথে জড়িয়ে পড়বে এবং প্রত্যহ পাঠক হয়ে উঠবে। অন্যদিকে কেউই আপনার ব্লগ পছন্দ করবে না যদি সেটি তথ্যহীন এবং তথ্যটি ভাসা ভাসা হয়।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যুক্ত থাকুন

শুধুমাত্র ভালো পোষ্ট লেখায় যথেষ্ট নয়।  আপনার ব্লগ নতুন বিধায় সার্চ ইঞ্জিন আপনার লেখা খুঁজে পাবেনা, তাহলে আপনি পাঠক পাবেন কোথা থেকে? আপনাকেই প্রচারক হতে হবে।

পাঠকদের আকর্ষণ পাওয়ার সবচেয়ে ভালো  উপায় হলো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম যেখানে আপনি আপনার পোষ্ট প্রোমোট করতে পারেন। এছাড়া আপনি ফেইসবুক,  টুইটার এবং ইন্সটাগ্রাম হতে পাঠক কিনতেও পারেন

আপনার একটি পোষ্ট বিভিন্ন জায়গায় প্রকাশ করতে পারেন কিন্তু মাথায় রাখবেন আপনি যেন স্পামার হয়ে না পরেন।  এই ব্যাপারে আরো

জানতে কমেন্ট করুন।

HTML জ্ঞান রাখুন

ধন্যবাদ সেসব পাওয়ারফুল ব্লগিং প্ল্যাটফরমকে কারন এখন ব্লগিং করতে আর HTML & CSS এর তেমন প্রয়োজন হয় না। কারণ সেখানেই সহজভাবে কাস্টোমাইজের নিয়ম দেওয়া আছে।

তবুও কিছু বেসিক HTML এবং CSS এর ব্যবহার আপনার ব্লগকে করে তুলবে প্রোফেশনাল

What's Your Reaction?

Angry Angry
0
Angry
Cry Cry
0
Cry
Cute Cute
0
Cute
Damn Damn
0
Damn
Dislike Dislike
0
Dislike
Fail Fail
0
Fail
Geeky Geeky
0
Geeky
Like Like
0
Like
Lol Lol
0
Lol
Love Love
4
Love
OMG OMG
0
OMG
Win Win
0
Win
WTF WTF
0
WTF

ব্লগিং শুরু আগে যা জানতেই হবে

log in

Become a part of our community!

Don't have an account?
sign up

reset password

Back to
log in

sign up

Join BoomBox Community

Back to
log in
Choose A Format
Poll
Voting to make decisions or determine opinions
Story
Formatted Text with Embeds and Visuals
Video
Youtube, Vimeo or Vine Embeds
Audio
Soundcloud or Mixcloud Embeds
Image
Photo or GIF